a thought

১০ বছরের পরিবর্তন

সম্প্রতি ফেসবুকে শুরু হয়েছে একটা চ্যালেঞ্জ, ” ১০ বছরের চ্যালেঞ্জ ” । আসলে ১০ বছর মানে একটা দশক , কম সময় নয় পরিবর্তনের জন্য । কিন্তু তেমনি আবার কোনো উপসংহার করার জন্য কম সময় । অনেক সময় চট করে কেউ ই কোনো কিছু দেখে বলতে পারবে না যে কোনটা ১০ বছর আগের আর কোনটা এখনকার ।

কিন্তু মেয়েরা জানো কি আমাদের সাজ-পোশাক , মেক আপ করা দেখে যে কেউ সহজেই বলে দিতে পারবে যে কোনটা আগের । কিভাবে ? তবে পড়ে নাও এটা

১) ম্যাট মেক আপ নয় গ্লোসি – ইনস্টাগ্রাম , প্রিন্টারেস্ট নানা জায়গার ফটো দেখে এখন এটাই বোঝা যাচ্ছে যে এখন মুখটা ভিজে ভিজে দেখতেই বেশি ভালো লাগে , তাই গ্লোসি মেক আপ । দশ বছর আগে সেখানে শুকনো ম্যাটে মেক আপ করার ই চল ছিল ।

২) ট্যান ত্বকের বদলে স্বাভাবিক ত্বক – ২০০৯ সালে চারিদিকে বিশেষ করে পাশ্চাত্য দেশে অনেক ট্যান করার সেলুন গড়ে উঠেছিল । শীতকালে ও মেয়েরা এই রকম রোদপোড়া ত্বক করে ঘুরে বেড়াতো । কিন্তু আধুনিক কালে , মেয়েরা প্রায় এই ট্যান শব্দ ভুলে গিয়ে ,নিজের স্বাভাবিক ত্বককেই সুন্দর করে তুলতে সচেষ্ট । সেলিব্রিটি মহিলারাও এই ট্রেন্ডকে ই অনুসরণ করছেন ।

৩) চুলের কাট – ২০০৯ সালে কি রকম চুলের স্টাইল চলছিল , মনে আছে কি ? পিক্সি কাট ,বব কাট এইসব ই ছিল জনপ্রিয় ।রিহান্না , ভিক্তোরিয়া বেকহাম , মিলি সিরাস এইসব বিখ্যাত মহিলারা সেই সময় এই ভাবেই নিজের চুল কেটে ছিলেন । ২০১৯ সালে কি চলছে বলতো ? চুলের স্টাইল হলো এখন ,” বেবি ব্যাং “, ” ব্ল্যান্ট কাট “, ” কার্টেন ব্যাং ” এইসব ।

৪) চিরতরুণী নয় , সজীব বৃদ্ধা – নানা কসমেটিক ব্যবহারের পর , বোটক্স, ফিলার এইসব নানা জিনিসের চল ১০ বছর আগে বেশ ই জনপ্রিয় হয়েছিল । এর ফলে আমরা পাই ,না কোঁচকানো মুখ -চোখ , শক্ত মুখের হাসি কিন্তু তরুণী সুলভ ত্বক । কিন্তু এখন মানুষ পছন্দ করছে , ” স্মার্ট এজিং ” মানে বয়সের পরিবর্তন পড়ুক তোমার চোখে মুখে আর তোমার খোলামেলা হাসিতে । কোনো লুকোছাপা না করে এই পরিবর্তনকে আলিঙ্গন করার হলো এখনকার প্রবণতা ।

৫) চুলের রং – দশ বছর আগে থেকে শুরু হয়েছে চুলে রং করার প্রবণতা , সকলেই কালো করতেন এমনকি সাদা চুল ও কালো হয়ে যেত অনায়াসেই । মাঝে আবার শুরু হয়েছে চুলের উপর নানা রং করার ঝোঁক । কিন্তু সম্প্রতি আবার শুরু হয়েছে পাকা চুল সাদা রঙের রাখার ইচ্ছা । অনেকে মেয়েই এখন আর নিজেদের সাদা চুল নিয়ে হীনমন্যতায় ভোগেন না ।

৬) নখের ডিজাইন – সব থেকে বেশি যে ফ্যাশন পরিবর্তন হতেই থাকে তাকে ই বোধহয় নখের ফ্যাশন বলে ।২০০৯ সালে দেখা যায় , মেয়েরা কফিন ধরণের নখের আকার রাখতো আর একই রঙের নেলপালিশ পরতো । কিন্তু ২০১৯ সালে , দেখা যাচ্ছে নখের আকার হচ্ছে আমন্ডের মতো , আর নখের উপর নানা রঙের নেল পালিশ সাথে গ্লিটার চড়ছে ।

৭) জটিল না সাধারণ মেক আপ – স্মোকি চোখ , নানা রঙের মিশ্রণ , ঠোঁটের মেক আপ সব কিছুতেই অনেক সময় লাগিয়ে দিতাম আমরা ২০০৯ সালে । কিন্তু এখনকার মেক আপ খুবই সাধারণ , চোখ আর ঠোঁটকে সুন্দর করে সাজিয়ে নিলেই তুমি ঠিকঠাক তৈরী ।

৮) ৯০-৬০-৯০ না যেমন তুমি – ভোগ ম্যাগাজিনের মডেলের মতো নিজেদের শরীর গড়ে তোলাই ছিল দশ বছর আগে আমাদের ধ্যান জ্ঞান ।কিন্তু এটা সব সময় সম্ভব নয় তাই এখনকার পরিবর্তন হলো তুমি যে রকম , সেই রকম ই থাকো । তাই এখন নতুন যোগ হয়েছে , ” প্লাস সাইজের মডেল “। তুমি নিজের শরীরকে ভালোবেসে নিজেকে সাজিয়ে তোলো , এই হলো ২০১৯ ।

৯) কসমেটিকস – ২০০৯ সালে যখন আমরা কসমেটিক কিনতাম , তখন তার ব্র্যান্ড , দাম এইসব দেখে কিনতাম । কিন্তু এখন আমরা প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি কসমেটিকস বেশি ব্যবহার করি কারণ ত্বকের স্বাস্থ্য ই বেশি জরুরি । ইকো-ফ্রেন্ডলি মেক আপ ব্যবহার এখনকার দিনে খুবই জনপ্রিয় ।

১০) অন্তর্বাস – আমরা মেয়েরা অন্তর্বাস ব্যবহারের ক্ষেত্রে প্রায় ই খোঁজ খবর রাখি এখন ঠিক কি চলছে সেই ব্যাপারে । তবে দশ বছর আগে -পরে যে পরিবর্তন চোখে পরে তা হলো , আমরা এখন সব ধারণা ছেড়ে আরামপ্রিয়তাকেই প্রাধান্য দেই ।

তাহলে এই দশ বছরের চ্যালেঞ্জ দেখে আমরা এইটুকু বলতে পারি যে , মেয়েরা এখন আরাম , সহজতা, প্রাকৃতিক , এই ব্যাপার গুলোকেই আপন করে নিচ্ছে ।আধুনিকা চায় একইসাথে স্বাস্থ্যবতী আর সুন্দর থাকতে ।

Tagged , , , ,

About Antara Samanta

Myself is Antara Samanta, a wanna be writer in homemaking style with an idea to embrace the indifference in a classy dynamic way. Antara is passionate about reading,singing and writing-in that way.
View all posts by Antara Samanta →