useful things

তুমি ও স্মার্ট

পুরানো ফোনের বদলে আমরা কবেই হাতে তুলে নিয়েছি স্মার্ট ফোন আর তার সাথে সাথে আমরাও স্মার্ট । কিন্তু যতই আমরা সারাদিন ফোন নিয়ে নাড়াচাড়া করি ততই কিছু না কিছু নতুন কিছু আমাদের নাড়া দেয় । সবকিছু সকলের পক্ষে জানা সম্ভব না , কেউ হয়তো অনেকটাই জানে । তাই এই জানা না জানার মধ্যে স্মার্টফোন নিয়ে তুমি তাড়াতাড়ি কিসব করতে পারো তারই একটা ছোট্ট তালিকা দিলাম …….

১) অটো রোটেট – আমাদের স্মার্টফোনের এই অপসনটা বন্ধ করে রাখলেই ভালো । যখন দরকার তখন অন করে নিও । আসলে এই অপসনটা অন থাকার সময় একসেলেরোমিটার নামের একটা সেন্সর কাজ করে যাতে ব্যাটারির চার্জ কমে যায় দ্রুত ।

২) চার্জিং – আমরা প্রায়ই বিরক্ত হই এই কারণে যে কেন ফোনের চার্জ দেবার কর্ডটা ওতো ছোট । আসলে আমরা যাতে ফোন চার্জে বসিয়ে বেশি কথা না বলতে পারি তাই এই ব্যবস্থা । চার্জে দেয়া অবস্থায় বেশি কথা বললে ফোনের ব্যাটারির ক্ষমতা তাড়াতাড়ি কমে যায় ।

৩) এয়ারপ্লেন মোড – যদি তাড়াতাড়ি ফোন চার্জ করে নিতে চাও তবে এয়ারপ্লেন মোড অপশন ব্যবহার করো । এতে ফোন , সিগন্যাল সার্চ করার জন্য ক্ষমতার অপব্যবহার করবে না আর দ্রুত চার্জড হয়ে যাবে ।

৪) প্রেস আর ধরে থাকো – কোনো একটা সুন্দর জিনিসের ফটো নিতে চাও একটুও সময় নষ্ট না করে মানে টানা ফটোশুট করতে চাও তবে সাটার বাটনটা টিপে ধরে থাকো । দারুন সুন্দর ফটো আসবে , সেকেন্ডে প্রায় ২০ টি ফটো ওঠে এতে ।

৫) এক হাতে – অনেকসময় সেলফি তোলা কিংবা অন্য কিছু ফটো তোলা ,এক হাতে করা সম্ভব হয়ে ওঠে না বিশেষ করে ফোন যদি খুব বড়ো হয় তবে আরো সমস্যা । বেশিরভাগ সময়েই হাত কেঁপে ওঠে এমনকি ফোন ও পরে যেতে পারে । এক্ষেত্রে ফোনের ভলিউম বাটনকে শাটার বাটন হিসাবে ব্যবহার করতে পারো ।

৬) পার্কিং – নতুন কোনো জায়গায় গিয়ে গাড়ি পার্কিং করে আমরা অনেকেই গোলকধাঁধায় পড়ি । তাই চটজলদি উপায় হিসাবে যে কোনো একটা ল্যান্ডমার্ক সমেত ফটো নিজের মোবাইলে রেখে দাও । ফিরে এলে সহজেই নিজের গাড়ির খোঁজ পেয়ে যাবে এমনকি গাড়ি চুরি গেলেও এই ফটো কাজে দেবে ।

৭ ) ভিডিও – কোনো ভিডিও তোলার সময় অডিওর গুনাগুন কমে যায় কারণ চারিপাশের আওয়াজ । তাই এই সমস্যা মেটাতে মাইক্রোফোনের উপর আঙ্গুল দিয়ে ঢেকে দাও তাহলে পিছনের কোনো আওয়াজ আর রেকর্ড হবে না ।

৮ ) সানগ্লাস – এই জিনিসটি ব্যবহার করলে তুমি নিজেই অবাক হয়ে যাবে । আসলে এটি ফিল্টার হিসাবে কাজ করে । যখন কোনো কিছু জোরালো আলোর ফটো তুলছো তখন সানগ্লাসটা ফোনের ক্যামেরার সামনে ধরে রাখো । এতে আলোর তীব্রতা কমে যাবে আর সুন্দর ফটো উঠবে ।

৯ ) ওয়ালপেপার – ফোনের ওয়ালপেপার অনেকসময় ই ফোনের চার্জ কম করে দেয় কারণ এর উজ্জ্বলতা । তাই যদি কালো রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করা হয় তবে ব্যাটারির চার্জ অনেকটা সময় থাকবে ।

১০ ) পরিষ্কার – ফোনের মধ্যে অনেক রকমের ব্যাকটেরিয়া বাস করে কারণ একে নিয়ে দিনরাত আমরা কোথায় না ঘুরি । তবে সবসময় বাজার থেকে ফোন পরিষ্কারের লিকুইড কেনার থেকে বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারো , ৮০ % জল আর ২০ % এলকোহল দিয়ে । প্রতিদিন ই ফোন স্ক্রিনে স্প্রে করে মুছে নিলেই ফোন জীবাণুমুক্ত হয়ে যাবে ।

১১ ) অ্যালার্ম – সকালে অ্যালার্ম ছাড়া ঘুম ভাঙে না অথচ জোর আয়াজটাও খুবই কানে লাগে । এই সমস্যার সমাধান হলো ফোনটাকে কোনো কাপে কিংবা মাগে রেখে দেয়া । ফোনের জোর আওয়াজ অনেকটাই কমে যাবে ।

১২ ) রিস্টার্ট – ফোনের নানা কাজকর্ম কিন্তু সবসময়েই একইরকম চলে না । এরই জন্য ফোনটাকে এক সপ্তাহে অন্তত তিনবার রিস্টার্ট করে নাও । ফোন ও একটু বিশ্রাম পাবে আর আপগুলো ও নিজেদের কাজ গুছিয়ে নেবে ।

১৩ ) ছুঁয়ো না – ফোনের অ্যালার্ম মোড অন করে রাখো আর সাথে ” ডু নট টাচ মাই ফোন ” আপ টা ইন্স্টল্ করে নাও । ফোন থেকে যদি কেউ মেসেজ পড়ার চেষ্টা করে কিংবা চুরি করতে চেষ্টা করে তবে অ্যালার্ম বেজে উঠবে আর তুমি ও সতর্ক হয়ে যাবে ।

আপাতত এই গুলোই ,এইভাবে দিনের পর দিন নানা নতুন উপায় ব্যবহার করে স্মার্টফোনের থেকে ও তুমি স্মার্ট হয়ে যাবে ।

Tagged , ,

About Antara Samanta

Myself is Antara Samanta, a wanna be writer in homemaking style with an idea to embrace the indifference in a classy dynamic way. Antara is passionate about reading,singing and writing-in that way.
View all posts by Antara Samanta →